সেকনিডাজল (Secnidazole)



নির্দেশনাঃ আন্ত্রিক অ্যামিবীয় আমাশয়, যকৃতের অ্যামিবীয় প্রদাহ, ট্রাইকোমোনাস ভ্যাজাইনালিস জনিত মূত্রনালী প্রদাহ ও যোনি প্রদাহ এবং জিয়ারডিয়াসিস।

মাত্রা ও ব্যবহার বিধিঃ প্রাপ্ত বয়স্ক : ২ গ্রাম এর একক মাত্রা।
শিশু: ৩০ মি.গ্রা./কেজি (দেহের ওজন অনুসারে) একক মাত্রা। খাদ্য গ্রহণের ঠিক আগে সেবন বাঞ্ছনীয়।

সতর্কতাঃ অতিসংবেদনশীলতা, চিকিৎসার সময় রোগীদের এলকোহল গ্রহণ না করার পরামর্শ দেওয়া উচিত ৷ যে সব রোগীর ব্লাড ডিসক্রেসিয়ার ইতিহাস আছে, সেসব রোগীকে সেকনিডাজল সেবনের পরামর্শ প্রদান করা থেকে বিরত থাকা উচিত।


পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াঃ বমি ভাব, অধি-পাকস্থলিক বেদনা, ধাতব স্বাদ, জিহ্বা প্রদাহ, মুখবিবর প্রদাহ,  আর্টিকেরিয়া, মাঝারি ধরনের লিউকোপেনিয়া, যা চিকিৎসা বন্ধ করার সাথে সাথে অন্তর্হিত হয়। বিরল ক্ষেত্রে ঘূর্ণানুভূতি, পেশীর অসমক্রিয়া ও ক্রিয়াজনিত অসমন্বয়, পেরেস্থেশিয়া, প্রান্তিক স্নায়ু রোগ।

অন্যান্য ওষুধের সাথে প্রতিক্রিয়াঃ  ডাইসালফিরাম, ওয়ারফেরিন।

গর্ভাবস্থা ও স্তন্যদানকালে ব্যবহারঃ গর্ভধারণকালে প্রথম তিন মাস এবং স্তন্যদানকালীন সময়ের মধ্যে সেবন করা উচিত নয়।

সরবরাহঃ ট্যাবলেট এবং সাসপেনশন তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় গ্র্যানুলস৷

বাজার নামঃ সেকনিড, সেকনিজল, সেজল, সেকনিডাল ৷
Powered by Blogger.