সেটিরিজিন ডাইহাইড্রোক্লোরাইড ( Cetirizine dihydrochloride)



নির্দেশনাঃ সিজনাল এলার্জিক রাইনাইটিস, পেরিনিয়াল এলার্জিক রাইনাইটিস এবং ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়ায় নির্দেশিত। এটি এ্যালার্জেন এর ফলে সৃষ্ট এ্যাজমাকে দূর করে।

মাত্রা ও ব্যবহার বিধিঃ ৬ বছর বা এর বেশী বয়সের শিশুদের এবং বয়স্কদের ক্ষেত্রে দৈনিক ১টি ট্যাবলেট। সিরাপ: ২ চা চামচ প্রতিদিন একবার অথবা ১ চা চামচ প্রতিদিন দুই বার। ২-৬ বৎসরের বাচ্চাদের ক্ষেত্রে সিরাপ: এক চা চামচ প্রতিদিন। অথবা ১/২ চা চামচ প্রতিদিন দুই বার। ৬ মাস-২ বছরের নীচে বাচ্চাদের ক্ষেত্রে সিরাপ: ১/২ চা চামচ প্রতিদিন। ১২-২৩ মাসের শিশুদের জন্য সর্বোচ্চ মাত্রা ১/২ চা চামচ করে প্রতি ১২ ঘন্টা অন্তর দেয়া যেতে পারে।

পেডিয়াট্রিক ড্রপসঃ ১ মি.লি. করে দিনে একবার। ১২-২৩ মাসের শিশুদের জন্য সর্বোচ্চ মাত্রা ১ মি.লি. করে প্রতি ১২ ঘন্টা অন্তর দেয়া যেতে পারে।

সতর্কতা ও যেসব ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে নাঃ গাড়ী ও ভারী মেশিন চালানোর ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। সেটিরিজিন গ্রহন এর পর অতিরিক্ত অ্যালকোহল বা অন্যান্য সিএনএস ডিপ্রেসেন্ট ওষুধ গ্রহন থেকে বিরত থাকা উচিত।

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াঃ সামান্য পরিমাণ ঘুম ঘুম ভাব পরিলক্ষিত হতে পারে।

গর্ভাবস্থা ও স্তন্যদানকালে ব্যবহারঃ গর্ভবতী মহিলাদের ক্ষেত্রে অতীব প্রয়োজনীয়তা না থাকলে সেটিরিজিন গ্রহণ করা উচিত নয়। সেটিরিজিন মায়ের দুধের সাথে নিঃসৃত হয়। তাই স্তন্যদানকারী মায়েদের ক্ষেত্রে ইহা নির্দেশিত নয়।

সরবরাহঃ ট্যাবলেট, সিরাপ এবং পেডিয়াট্রিক ড্রপস আকারে পাওয়া যায় ৷

বাজার নামঃ এলাট্রল, এসিট্রল, এটরিজিন, সেটিজিন, সেট্রিন, সেট্রিল ৷

Powered by Blogger.